শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo মানবিক আওয়ামী যুবলীগ গড়ার প্রত্যয় রাজ পথে Logo বাউফলে বিধবা নারীকে হয়রানি, আদালতে মামলা। Logo শারদীয় দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পল্লবী থানার ওসি পারভেজ ইসলাম। Logo বরগুনার আমতলী হতে র‌্যাবের হাতে একজন গাঁজা ব্যবসায়ী গ্রেফতার। Logo সুনামগঞ্জে সফল নারী উদ্যোক্তা সম্মাননা পেলেন তৃষ্ণা আক্তার রুশনা Logo রাঙ্গাবালীর চরমোন্তাজে ওয়াল্টন এক্সক্লুসিভ শোরুম উদ্বোধন Logo গলাচিপার উলানিয়া বন্দর বনিক সমিতির নবগঠিত কমিটির সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত Logo কাতারে এসএম সাগরের জমজমাট মাদক ব্যবসা, ঝুঁকিতে অভিবাসন খাত Logo মুরাদনগরে জুমার খুৎবার আযানকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১৫ Logo বারদী ইউনিয়নের মাদ্রাসা এতিমখানা সহ বিভিন্ন অসহায়দের মাঝে লায়ন বাবুলের উদ্যোগে রান্না করা খাবার বিতরণ

সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী তারেক সালমানের উপর কিশোর গ্যাংয়ের হামলা

বার্তা বাণী ২৪ ডেস্কঃ / ১৯১ বার পঠিত
সময় : বুধবার, ২ জুন, ২০২১, ৪:১৩ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ সম্মিলিত সাংবাদিক সোসাইটি বিইউজেএস’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির দপ্তর সম্পাদক দৈনিক বার্তা বাণী ও বার্তা বাণী ২৪ এর সম্পাদক ও প্রকাশক ও দৈনিক অন্যদিগন্ত ও দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার তারেক সালমান কিশোর গ্যাংয়ের হামলার শিকার হোন। গত ৩১ মে সোমবার আনুমানিক রাত ১০: ঘটিকার সময় নারায়ণগঞ্জ আদমজী র‍্যাব -১১ পাশে এ ঘটনা ঘটে কুখ্যাত প্রতারক প্রদীপ চন্দ্র বর্মন ও তার সহযোগী আনিসুর রহমান র‍্যাব -১১ অভিযানে আটক হওয়ার জেরে আনিসুর রহমানের বখাটে ছেলে আরমান সহ প্রায় ২০ জন তাকে হামলা করে বলে খবর পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে তারেক সালমান জানান, গত ৩১ মে নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন মাদানীনগর এলাকা থেকে আনুমানিক ৩:০০ ঘটিকায় প্রতারকচক্রের মূলহোতাসহ ০২ জন কে গ্রেফতার করে র‍্যাব-১১। আনুমানিক ৭:৩০ ঘটিকায় সংবাদ সম্মেলন ডাকে র‍্যাব-১১ সেই সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিতে ও তথ্য সংগ্রহ করতে ব্যাটালিয়ন এর ভিতর যাই। ব্যাটালিয়ন থেকে যখন বের হই তখন দেখি প্রতারনার শিকার হওয়া অনেক ভুক্তভোগী দাঁড়িয়ে আছে বাহিরে তাদের সাথে কথা বলি তারা কিভাবে প্রতারণা শিকার হলেন হটাৎ দেখি আনিছের ছেলে সাথে আরেকটি ছেলেকে নিয়ে এসে বলে, এখানে কি? তখন আমি বলি ব্যাটালিয়ন এর ভিতরে আজ সংবাদ সম্মেলন ছিল। তারপর দেখলাম সাথে থাকা ছেলেটাকে ফিস ফিস করে কি যেন বলছে। ওদের ভাবসাব দেখে আমার সুবিধা মনে হচ্ছিল না। আমার তখন মনে হচ্ছিল ছেলে দুটো আমাকে নজরে রেখেছে। আনিছের ছেলে হঠাৎ দেখি মোবাইলে কারসাথে কথা বলতে বলতে ইপিজেডের দিকে যাচ্ছে আর ওর সাথের ছেলেটা আমার সামনে দাঁড়ানো ছিল। কিছুক্ষণ পরে আবার আনিছের ছেলেটা আমার কাছে আসে। তখন আমি যাদের সাথে কথা বলছিলাম তাদের থেকে বিদায় নিয়ে ওখান থেকে সাংবাদিক শামীম সহ একটু হেটে সামনে গিয়ে গাড়িতে উঠতে গেলে পিছন থেকে দৌড়ে আসে আনিছের ছেলে। আমার পাঞ্জাবীর কলার টেনে ধরে বলে, তোর মোবাইল দে তোর মোবাইল দেখি আর বলে, তোরা আমার বাপরে ধরাইছোত তারপর আমার মোবাইল নেবার জন্য ধস্তাধস্তি করে। একপর্যায়ে আমি দৌড় দিলে ওর সাথে আরও ২০-৩০ জন ছেলে আমাদের ধাওয়া করে। আমরা দৌড় দিলে আমি ব্যাটালিয়ন চেকপোস্ট এর পাশে পা পিছলে পরে যাই ও হাঁটুতে খুব আঘাত পাই। ওরা পিছন থেকে এসে কিল, ঘুসি, লাথি মারতে থাকে। পাশে থাকা লোকজন এসে আমাকে রক্ষা করে। পরে আমি ব্যাটালিয়নের ভিতরে ঢুকে যাই। কিছুক্ষন পর ব্যাটালিয়ন থেকে বের হলে আমার সাথে থাকা শামীমের জুতো রাস্তায় পরে থাকতে দেখে, একটা ছোট ছেলে জুতো দিতে এসে বলে,ওরা চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে আপনাদেরকে মারার জন্য। পরে গেটে সামনে অনেকক্ষন দাঁড়িয়ে থাকি আমরা। আর আমার ফোনে চার্জও ছিল না বন্ধ ছিল তাই আমি কাউকে ফোন দিতে পারিনি পরে অনেকক্ষন দাঁড়িয়ে থাকি এবং দেখি ব্যাটালিয়ন এর ভিতর থেকে একজন র‍্যাব কর্মকর্তা এগিয়ে আসে এবং সব কথা শুনে আমাকে ও সাংবাদিক শামীমকে বাসায় পৌঁছে দেবার ব্যবস্থা করেন। এ হামলার প্রতিবাদে বাংলাদেশ সম্মিলিত সাংবাদিক সোসাইটি বিইউজেএস’র মাননীয় চেয়ারম্যান এম এ মমিন আনসারী ও মহাসচিব বি এম আশিক হাসান সহ সংগঠনে পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা জানাই এবং হামলাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানাই। এ বিষয়ে জানতে আনিছের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। কেন তারা আপনার উপর হামলা করতে চায়? এ বিষয়ে তারেক সালমান বলেন, আসলে আনিছে বাসা আর আমার বাসা একি এলাকায় তার সাথে আমার চার পাঁচ মাস আগে পরিচয় হয় রাস্তায়। পরিচয় হবার পর আনিছ জানতে পারে আমি একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় কাজ করি, তখন তিনি আমার ফোন নাম্বার নিয়ে যান এবং তার তিন-চার দিন গেলে সে আমাকে বলে তাকে নিয়ে একটি নিউজ করার জন্য। আমি তার সম্পর্কে জানতে চাইলে তখন তিনি আমাকে বলেন, তিনি রংপুর জেলার একসময়ের ছাত্রনেতা ছিল। তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর চিঠি দিয়েছেন। তার জীবনে অনেক ঘটনা ঘটেছে এবং এখন তার দুর্দশায় জীবনযাপন কাটছে। সে ছেলেমেয়ের লেখা-পড়া করাতে পারেনা সংসার চালাতেও কষ্ট হয়। ভাবলাম একসময়ের ছাত্রনেতা সে এখন ঢাকার রিক্সাচালক এবং এত দুর্দশায় জীবন কাটাচ্ছে। তাকে নিয়ে নিউজ করলে যদি তার উপকার হয় তাই আমি তাকে নিয়ে নিউজ করি। সে প্রধানমন্ত্রী বরাবর যে চিঠি দিয়েছে ওটার ফটোকপি ৪/৫ পৃষ্ঠা আমাকে দিয়ে যায় আর ছবি দিয়ে যায় তার নিজের। তারপর আস্তে আস্তে তাকে দেখলাম যে সে কখনও রিকশাচালক, কখনো সাংবাদিক, কখনো মানবাধিকার পরিচালক বিভিন্ন পরিচয় তার। তার একটি ছেলে তাও কিশোরগ্যাং এর সাথে জড়িত তখন আমি তার কাছ থেকে সরে যাই যখন বুঝতে পারি যে সে একজন বহুরূপী মানুষ অনেকের সাথে সে প্রতারণা করেছে বলে এমন অনেক তথ্য আমার কাছে আসে এবং এ নিয়ে আমি নিউজ করতে চাই। যার কারণে হয়তো সে আমাকে তার শত্রু মনে করে।এখন আমি ও আমার পরিবারের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছি। কারণ সে ও তার ছেলে আমার বাসা চেনে কখন না বাসায় এসে হামলা করে সেই আতঙ্কের ভিতর আছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD